Follow us
English

পাখির টানে সিকিমের কিতাম

পাখির টানে সিকিমের কিতাম

পাখির পার্বত্য আবাস হিসেবে সিকিমের কিতামের কথা আসবেই। ১২০০ থেকে ৩০০০ ফুট উচ্চতায় ৬ বর্গ কিলোমিটার অঞ্চল জুড়ে শাল, চির, পাইন গাছে ঘেরা কিতামের দক্ষিণ প্রান্ত বরাবর বইছে পান্না সবুজ রঙ্গীত ও মানপুর নদী। জঙ্গল-নদীর এই পরিবেশ পক্ষীকুলের প্রিয় ও নিরাপদ আবাস। পাখিরালয় হিসেবে খ্যাতি অর্জন করেছে কিতাম। শুধু দেশের নয়, বিদেশের বহু পাখি পর্যবেক্ষকদের কাছেও কিতাম এখন একটি পরিচিত নাম।

প্রায় ২০০ প্রজাতির পাখির দেখা মেলে কিতামে। শীতে আসে পরিযায়ী পাখি। আর আছে প্রজাপতি। কিতাম প্রজাপতিরও আবাস। ১১১ প্রজাতির প্রজাপতির দেখা পাওয়া গেছে এখানে। কিতামে বছরভর যে সব পাখির দেখা মেলে তার মধ্যে রয়েছে রেড জাঙ্গল ফাউল, গ্রিন ম্যগপাই, ইন্ডিয়ান পি-ফাউল, স্কারলেট মিনিভার, গ্রে ক্রাউন্ড প্রিনিয়া, ইয়েলো ভেন্টেড ওয়ার্বলার, রুফাস নেকড হর্নবিল, চেস্টনাট ব্রেস্টেড প্যাট্রিজ, হিমালয়ান ফ্লেম ব্যাক প্রভৃতি। ময়ূরের দেখা মিলবে যত্রতত্র।

 

বায়নাকুলার আর ক্যামেরা সঙ্গে নিয়ে বেড়ান কিতাম এবং সুম্বুক গ্রামে। এই দুই গ্রাম জুড়েই পাখির অভয়ারণ্য। সুম্বুক গ্রামটি গ্ল্যাডিওলাস ফুলের চাষের জন্য বিখ্যাত। কিতামে রয়েছে কয়েকটি ভিউপয়েন্ট। এইসব ভিউপয়েন্ট থেকে চারপাশের দৃশ্য যেমন চমৎকার তেমন অনেক পাখির দেখাও মেলে। কিতামে ২০০ বছরের পুরনো একটি মাটির বাড়ি দেখে অবাক হতে হয়। চাইলে রঙ্গীত নদীতে মাছ ধরতে পারেন। দিনে দিনে নামচি বেড়িয়ে আসতে পারেন।

যাওয়ার পথ

এন জে পি রেল স্টেশন বা বাগডোগরা বিমানবন্দর থেকে চলে আসুন দক্ষিণ সিকিমের নামচি। দূরত্ব প্রায় ৯০ কিলোমিটার। এন জে পি বা শিলিগুড়ি থেকে শেয়ার গাড়ি পাবেন। প্রাইভেট গাড়ি ভাড়া করেও আসতে পারেন। নামচি থেকে কিতাম ১৯ কিলোমিটার।

থাকার ব্যবস্থা

বারবেট হোমস্টেঃ ফোন-৯৭৩৩৩-৫৮৫৪২, গ্রিন ম্যাগপাই হোমস্টেঃ ফোন-৮৩৪৮৫-৫৬৬৯১, গ্রেট হর্নবিল হোমস্টেঃ ফোন- ৯০৮৩০–৯১৯২৯, আয়োরা হোমস্টেঃ ফোন- ৯৫৯৩৭-৭৬৬২৪, মার্গানসার হোমস্টেঃ ফোন- ৯৯৩৩৪-২১৫০০, মালখোয়া হোমস্টেঃ ফোন-৯৮৩২০-৫৪৩১১।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *